শারীরিক অপারগতাকে পিছে ফেলে স্ট্রিমিংয়ের দুনিয়ায় এগিয়ে যাচ্ছেন নাহিন

3
7060

Nahin, Bangladesh’s deaf streamer extraordinaire

ঢাকার নাহিন সিরাজ, বাংলাদেশের সাধারণ কিশোরদের মতোই একজন। হাস্যরসিক ১৮ বছর বয়সী নাহিন ভালোবাসেন ফুটবল ও বন্ধুদের সাথে আড্ডা। অনলাইন গেমিং ও স্ট্রিমিংয়েও তার অনেক আগ্রহ। তবে অন্য ১০ জনের থেকে তাকে যে বিষয়টি আলাদা করে তা হলো, নাহিন শ্রবণ প্রতিবন্ধী হয়েও গেমিং ও স্ট্রিমিং চালিয়ে যাচ্ছেন। শুধু তাই না, গেমের মাঝে শত্রুদের মারমুখী মোকাবেলা করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দেন নাহিন। 

গেমিং-এর জগতে নাহিনের অসাধারণ যাত্রা, তার প্রিয় ভিডিও গেম, ও কীভাবে নাহিন ব্যাটেল রয়াল জেতার জন্য ইন-গেম যোগাযোগ করেন সে সম্পর্কে আরও জানুন।

‘সম্ভব না’-তেই থাকে সম্ভাবনা

গ্র্যান্ড থেফট অটো: ভাইস সিটি গেমের হাত ধরেই নাহিনের ভিডিও গেমের জগতে আসা (টমি ভারসেটি অ্যান্ড কোম্পানির আরও একজন ফ্যান)! আর এখন তিনি পাবজি মোবাইল, ফোর্টনাইট, কল অফ ডিউটি: ওয়ারজোন, গ্র্যান্ড থেফট অটো ফাইভ-এর মতো বেশ কয়েকটি শ্যুটার গেম খেলেন। 

তার প্রথম স্ট্রিমিং যাত্রা শুরু হয় ২০১৭ সালে তার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে। খেলতে খেলতে বেশ কিছু ফলোয়ার পায় নাহিন। দূর্ভাগ্যবসত কিছুদিন পর তার লাইভ স্ট্রিমিং-এ কোন ভিউ-ই আসছিলো না। বাধ্য হয়ে নাহিন তার ইউটিউব চ্যানেলটি ডিলিট করে পড়াশুনায় মনোযোগ দেন। 

তিন বছর পর শুরু হয় স্ট্রিমিং-এর দুনিয়ায় নাহিনের নতুন অধ্যায়। গত আগস্টে তিনি ‘নাহিন গেমিং’ নামে একটি পেইজ খুলেন ফেসবুকে। আর এবার ভিউ না পাওয়ার হতাশাকে তিনি ধারে কাছেও আসতে দেননি। প্রয়োজনের সময়ে মা ও বন্ধুদের কাছ থেকে নাহিন যথেষ্ট সহায়তা ও অনুপ্রেরণা পেয়েছেন। স্ট্রিমিং উপভোগ করে নিজের তালে এগিয়ে যাওয়াটাই মূল কথা, খেলা ভালো হলে ভিউইয়ার ও ফলোয়ার সময়ের সাথে চলে আসবে। 

এক মাসের মধ্যেই তার ৫০ জন ফলোয়ার হয়। নাহিন তখন দেশের বড় দু’জন গেমিং স্ট্রিমার- Arpon Plays YTApollo Gamingর কাছে তার ভিডিও পাঠান। উভয়ই নাহিনকে দেখে অত্যন্ত অনুপ্রাণিত হয়। তারা নাহিনের সাইন ল্যাঙ্গুয়েজ ভিডিওটি নিজেদের ফলোয়ারদের সাথে শেয়ার করে নাহিনকে ভালোবাসা ও সাপোর্ট দিতে বলেন। এর কিছু ঘণ্টার মধ্যেই নাহিনের ফলোয়ার সংখ্য ৫০ থেকে বেড়ে ১০ হাজার হয়ে যায়। এখন পর্যন্ত Nahin Gaming-এ ৩০ হাজারের কাছাকাছি ফলোয়ার আছে, যা এখনও বেড়েই চলছে। 

টিমমেটদের সাথে যোগাযোগ করা

স্কোয়াডের সাথে খেলা নাহিনের সবচেয়ে বেশি পছন্দের। কিন্তু তার পাবজি স্ট্রিম দেখলে যে কেউ অবাক হয়ে যাবে, মিশন পূরণ করতে নাহিন তার টিমমেটদের সাথে যোগাযোগ কীভাবে করে! শ্রবণ প্রতিবন্ধী হয়ে জন্ম হওয়ায় গেম চলাকালীন সময়ে শত্রুকে খুঁজে বের করতে বা অন্য যেকোন কিছুর জন্যই নাহিন শব্দের উপর ভরসা করতে পারে না। এর পরিবর্তে নাহিন তার টিমমেট ও লাইভ ভিউয়ারদের সাথে কথা বলার জন্য স্ক্রিনে একটি নোটপ্যাড ব্যবহার করে। শব্দের অভাব মেটাতে গেম চলাকালীন ভিজ্যুয়ালি তাকে অনেক বেশি মনোযোগী থাকতে হয়, যা মোটেও কোনো সহজ কাজ না। 

Nahin uses a notepadনাহিন তার টিমমেটদের সাথে দ্রুত কথা বলার জন্য নোটপ্যাড ব্যবহার করেন

প্রক্রিয়াটি অনেক কঠিনই বটে, কিন্তু নাহিনও নিজেকে অভ্যস্ত করে নিয়েছেন ঘনঘন এক ট্যাব থেকে আরেক ট্যাবে সুইচ করে গেম খেলা ও কথা বলায়। কথা বলতে বলতে গেম খেলাই যেখানে গেমারদের মধ্যে স্বাভাবিক, সেখানে নোটপ্যাডই ছিলো নাহিনের জন্য সেরা উপায়। 

‘এশিয়ার ১ নম্বর শ্রবণ প্রতিবন্ধী স্ট্রিমার’

নাহিনের ফেসবুক পেইজে গেলেই তার বায়োতে ‘এশিয়ার ১ নম্বর শ্রবণ প্রতিবন্ধী স্ট্রিমার’ লেখা দেখা যাবে। নাহিন জন্মের পর থেকেই কানে শুনতে পেতো না। তাই সে এশিয়াতে তার মতোই কাউকে খোঁজার চেষ্টা করে, কিন্তু গেম স্ট্রিমিংয়ের দুনিয়ার এশিয়াতে এমন আর কেউই নেই।  

তারপর সে খোঁজ পায় ফেজ ইওক-এর। ইউএস-এর ফেজ সুপরিচিত একজন প্রোফেশনাল ফোর্টনাইট প্লেয়ার এবং সেও শ্রবণ প্রতিবন্ধী। এ থেকেই নাহিন তার ব্যানার ইনফো ও বায়োতে ‘এশিয়ার ১ নম্বর শ্রবণ প্রতিবন্ধী স্ট্রিমার’ তথ্য দিতে উৎসাহ পায়। 

ভবিষ্যতে নাহিন অ্যাপোলো গেমিং (Apollo Gaming) এবং অর্পন প্লেস ওয়াইটি (Arpon Plays YT)-এর সাথে কাজ করার আশা রাখেন। 

নতুন শ্রবণ প্রতিবন্ধী স্ট্রিমারদের জন্য কিছু টিপস

নাহিনের বাবা তার ছেলের গেমিং যাত্রা নিয়ে কিছু গল্প বলেন। নাহিন বরাবরই পড়াশুনায় ভালো ছিলেন। এমনকি প্রতিবন্ধীদের জন্য আয়োজিত একটি সরকারি আর্ট কম্পিটিশনে নিজের জেতা টাকা দিয়েই নাহিন তার স্ট্রিমিংয়ের কম্পিউটারটি কিনেন।  

নাহিন বিশ্বাস করে, তার মতো প্রতিবন্ধকতা নিয়েও যারা স্ট্রিমিং জগতে এগিয়ে যেতে চায় তাদের লড়াই করে যেতে হবে সবসময়, প্রতি পদক্ষেপে নিজেকে চ্যালেঞ্জ করতে হবে, সাধারণ প্লেয়ারদের সাথে নিজেদের ভেদাভেদ যতো সম্ভব কম করতে হবে। ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য স্ট্রিমারদের অবশ্যই এনগেজমেন্ট ইমপ্রুভ করা শিখতে হবে; নিজের স্ট্রিমকে সাপোর্ট করার জন্য নিজেই টাকার ব্যবস্থা করার চেষ্টা করা ভালো। 

স্বপ্ন ও ইচ্ছার পথে কোনো প্রতিবন্ধকতাকেই বাধা হতে দিও না… আর চিকেন ডিনারের পথেও!

BUY APP & GAME VOUCHER ONLINE

3 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here