পিসিতে ডাউনলোড করুন ফ্রি ফায়ার

0
12681

গ্যারেনা ফ্রি ফায়ার একটি থার্ড-পারসন অনলাইন মাল্টিপ্লেয়ার ব্যাটেল রয়াল গেম যা 111 Dots Studio দ্বারা তৈরি। গুগল প্লে স্টোর এই গেমকে ২০১৯ সালের সবচেয়ে ডাউনলোডকৃত গেম হিসেবে ঘোষণা করে। বিভিন্ন ধরনের অ্যান্ড্রয়েড ইম্যুলেটরের উপস্থিতির কারণে আপনি গেমটি সহজেই পিসিতে অথবা ল্যাপটপে খেলতে পারবেন।

ফ্রি ফায়ার অধিকাংশ ডাউনলোডযোগ্য ইম্যুলেটরের সাথে কাজ করে যার মধ্যে Bluestacks, Nox, MEmu Play এবং GameLoop চার্টের টপে আছে। আপনি সহজেই গেমটি ডাউনলোড করতে পারবেন যদি পূর্ব উল্লেখ্যিত কোনো ইম্যুলেটর আপনার ইনস্টল করা থাকে।

আপনার যদি কোনো ইম্যুলেটর ইনস্টল না করা থাকে এবং ফ্রি ফায়ার যদি ইম্যুলেটরে খেলার জন্য আপনার প্রথম মোবাইল গেম হিসেবে বেছে নেন, তবে কোনো টেনশন ছাড়াই এই ওয়েবসাইটগুলো থেকে লেটেস্ট ভার্সনগুলো নামিয়ে নিন: 

https://www.bluestacks.com/
https://www.bignox.com/
https://www.memuplay.com/
https://gameloop.mobi/    

ইম্যুলেটর ডাউনলোড করার আগে আপনার অবশ্যই উচিৎ প্রয়োজনীয় স্পেকস্‌গুলো একবার দেখে নেয়ার। আমরা অবশ্যই নিম্নের স্পেকস্‌গুলো রেকোমেন্ড করছি পিসিতে ফ্রি ফায়ার খেলার জন্য:

  • উইন্ডোজ ১০
  • কোয়াড অথবা অক্টাকোর প্রসেসর @১.৮~২.০ গিগাহার্টজ (আপনি চাইলে ওভারক্লক করতে পারেন)
  • ৮ জিবি র‍্যাম

আমরা গ্রাফিক্স কার্ডের রিকোয়ার্মেন্ট নিয়ে এখানে আলাপ করিনি, কারণ আপনার পিসিতে থাকা জিপিউ (GPU) মোবাইল গেম গ্রাফিক্স চালানোর জন্য যথেষ্ট হয়ে থাকে। কিন্তু, আপনি যদি তাও সবচেয়ে ভালো সেটিং দিয়ে খেলতে চান, তাহলে যেকোনো ডিভাইস যেটি ৪ জিবির উপরে র‍্যাম আছে সেই ডিভাইস দিয়ে আপনি আরামে মোবাইল গেম খেলতে পারবেন, কারণ মোবাইল গেমের গ্রাফিক্সের চাহিদা এতোটা বেশি নয়।

আপনার কাছে যখন সেই ইম্যুলেটরটি থাকবে যেটি আপনি ইনস্টল করতে চান, আপনি খুব সহজেই আপনার গুগল প্লে স্টোর একাউন্টে লগইন করতে পারবেন এবং ফ্রি ফায়ার নামিয়ে নিতে পারবেন। আমরা আপাতত অপটিমাল সেটিং নিয়ে আলোচনা হয়তো অন্য কোনো ব্লগে করবো, কারণ এইসব ইম্যুলেটরে থাকা প্রিডিফাইন্ড সেটিং গেমটি স্মুথ্‌লি চালানোর জন্য যথেষ্ট।

পিসিতে ফ্রি ফায়ার খেলা

ভালো দিক

আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে, ফ্রি ফায়ার তো মোবাইল গেম, এটা পিসিতে কেনো খেলবো? এটার অনেকগুলো কারণ আছে যার মধ্যে সবচেয়ে কমন কারণগুলো হলো:

১. সবার কাছে ভালো মোবাইল ফোন নেই স্মুথ্‌ গেমিং এক্সপেরিয়েন্সের জন্য

বাজেট ফোনগুলোতে সাধারণত ২ জিবি র‍্যামের বেশি থাকে না, যা যেকোনো ধরনের ব্যাটেল রয়াল টাইপের গেম খেলার জন্য মোটেও যথেষ্ট নয়। এর বিপরীতে একটি পিসি i3 এবং ২ জিবি র‍্যাম নিয়ে সঠিক সেটিং দিয়ে খুব আরামেই কয়েকটি মোবাইল গেম চালাতে পারবে ইম্যুলেটর দিয়ে। আমরা যদিও লোয়ার লেভেলের পিসি দিয়ে ফ্রি ফায়ার খেলতে রেকোমেন্ড করি না, আরেকটু দামি স্মার্টফোন কেনার চেয়ে একটি লোয়ার কোয়ালিটির পিসি কেনা আরো বুদ্ধিমানের কাজ।

২. কিছু প্লেয়ার, বিশেষ করে শুটার গেমের ক্ষেত্রে, কিবোর্ড আর মাউস দিয়ে এইমিং ও শুটিং করতে আরো কমফোর্টেবল।

যেসকল গেমার পাবজি ও CS:GO খেলতে অভ্যস্ত, তাদের কাছে মোবাইলের কন্ট্রোল অনেক ধীরগতির মনে হয় যখন তারা ব্যাটেল রয়াল গেমগুলো খেলা শুরু করতে থাকে। এটা আরো অনেক মানুষের ক্ষেত্রে সত্য, মাসল মেমোরি শুটার গেমের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ স্কিল, আর মাউস থেকে আঙ্গুলে সুইচ করা বা এমনকি Gyro Aiming-এর কারণে অভ্যস্ত না হলে আপনার খেলায় অনেক ব্যাঘাত আসতে পারে। পিসিতে গেম খেললে আপনার মাসল মেমোরি মেইনটেইন করা যায়। আর মাউস দিয়ে হেডশট পাওয়া অনেক সহজ।

৩. পিসি এখনো সবচেয়ে শক্তিশালী গেমিং কনসোল এবং অনেক গেমারই চান একটি পাওয়ারফুল পিসির পেছনে খরচ করতে, কারণ গেম খেলার ক্ষমতা ও স্পেশালটির জন্য পিসি এখনো সেরা।

এই মতামতের সাথে আর্গুমেন্ট করার কোনো অপশনই নেই এবং এর কারণ উপরের কথা চিন্তা করলে অনেকটাই অনুমান করা যায়। এছাড়াও আপনার কাছে নানা ধরনের গেম খেলার সুযোগ আছে ইম্যুলেটরের সাহায্যে।

৪. পিসিতে স্ট্রিমিং করা সবচেয়ে সহজ।

আপনার পিসি যদি স্ট্রিমিং করার জন্য দরকারি সব রিকোয়ারমেন্ট পূরণ করে, তাহলে আপনি পিসিতে আরো সহজে ফ্রি ফায়ার বা অন্য মোবাইল গেম স্ট্রিম করতে পারবেন, যেখানে ক্যাপচার কার্ড কেনার মতো বাড়তি জিনিসের ঝামেলা নেই।

আর খারাপ দিক আছে ২ টি:

১. আপনি পিসিতে প্রতিযোগিতামূলক টুর্নামেন্টে খেলতে পারবেন না

ইস্পোর্টস এখন দ্রুত বাড়তে থাকা একটি মার্কেট বিশেষ করে সাম্প্রতিককালের সময় বিবেচনা করলে। আর আপনি যদি প্রতিযোগিতামূলক কোনো খেলায় অংশ নিতে চান, তাহলে আপনাকে মোবাইলে গেম খেলতে হবে। এমনকি আইপ্যাড ও ট্যাবলেটও অনেকগুলো টুর্নামেন্ট থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তো আপনার একমাত্র অপশন অনলাইন টুর্নামেন্টে খেলার (যেখানে কিছু ক্ষেত্রে ইম্যুলেটরের ব্যবহারের কারণে আপনি ব্যান খেতে পারেন) অথবা স্বাভাবিক বা ক্যাজুয়ালি খেলা।

২. গেমের “মোবিলিটি” হারিয়ে যায়

গ্যারেনা ফ্রি ফায়ার একটি মোবাইল গেম, আর মোবাইল গেমের মূল বিষয়ই হলো যেখানেই যান সেখানেই খেলতে পারবেন, যা পিসির ক্ষেত্রে সম্ভব নয়। তবে ল্যাপটপের ক্ষেত্রে ব্যাপারটি ভিন্ন, কারণ অনেক ল্যাপটপ তো পোর্টেবল, তাই না?

Bluestacks

আমি পারসোনালি Bluestacks রেকোমেন্ড করছি কারণ আমি নিজে অনেকদিন ধরে এটি ব্যবহার করছি এবং অনেকগুলো মোবাইল গেমও খেলে ফেলেছি। Bluestacks-এর সবচেয়ে ভালো দিক হলো এর সেটিং নিয়ে অনেক ধরনের গাইড রয়েছে যার মাধ্যমে গেমটি আরো স্মুথ্‌লি চালানো যায়।

এছাড়া অন্যান্য ইম্যুলেটরের থেকে (যেগুলোর জন্য APK ফাইল নামানো লাগে) আপনি সহজেই Bluestacks থেকে প্লে স্টোর বা iOs থেকে যেকোনো অ্যাপ নামাতে পারবেন সরাসরি, যার কারণে কোনো ক্ষতিকর ম্যালওয়ার বা ক্ষতিকর ফাইল নামানোর সম্ভাবনা একদমই কমে যায়।

আমি পারসোনালি ফ্রি ফায়ার খেলি মোবাইল ডিভাইসে, কিন্তু পিসিতে ফ্রি ফায়ার স্মুথ্‌লি চালানোর জন্য সেটিংসে আমার বেশি পরিবর্তন আনা লাগেনি।

স্টেপ ১. ডাউনলোড করুন Bluestacks-এর লেটেস্ট ভার্সন এখানে।

স্টেপ ২. আপনার গুগল একাউন্টে লগইন করুন এবং প্লে স্টোর থেকে সহজেই ফ্রি ফায়ার ডাউনলোড করুন (Bluestacks-এ প্লে স্টোর আগে থেকেই প্রি-ইনস্টল করা থাকে)।

এটি মাথায় রাখুন যে, Bluestacks অটোম্যাটিকালি আপনার সিস্টেমের সব স্পেকস্‌ ডিটেক্ট করবে এবং এর সেটিং নিজে থেকেই প্রয়োজনমতো পরিবর্তন করে নিবে। তবে আপনি যদি ২ জিবি থেকে ৪ জিবি র‍্যাম চালান, তাহলে Bluestacks-এ আপনার আলাদা করে র‍্যাম নির্ধারণ করে দিতে হবে। কারণ ফ্রি ফায়ার অনবরত ৩০~৪৫ এফপিএস (FPS)-এ চালাতে চাইলে আপনার মিনিমাম ২ জিবি র‍্যাম লাগবে। এর থেকে নিচে হলে পুরো গেম গ্রাফিক্যালি স্লো হয়ে যাবে।

স্টেপ ৩. একবার গেমের ভেতর ঢুকে যাওয়ার পর, সেটিংসে যান এবং নিম্নবর্তী প্রিসেট সেটিংস বেছে নিন

আমি সেরা এক্সপেরিয়েন্সের জন্য আলট্রা ও হাই এফপিএস (FPS) রেকোমেন্ড করছি।

খুব সহজে লাইন করে সাজান এবং আপনি এখন রেডি! 

NOX Player

Nox অন্যান্য ইম্যুলেটরের থেকে আরেকটু জটিল। আমি এটি প্রথমবারের মতো ইউজারদের ক্ষেত্রে রেকোমেন্ড করছি না, কারণ এটি ঠিকমতো সেট আপ করা বেশ ঝামেলা। কিন্তু পজিটিভলি চিন্তা করলে, আপনি যদি এর ব্যবহার ঠিকমতো সময় নিয়ে শিখতে পারেন, তাহলে এটি Bluestacks-এর থেকে আরো শক্তিশালী।

স্টেপ ১. ডাউনলোড আর ইনস্টল করুন Nox Player আর রান করুন।

স্টেপ ২. Nox ইনস্টল করে গুগল একাউন্টে ইনস্টল করার পর আপনার হাতে দুইটি অপশন আসবে। আপনি চাইলে ইন-অ্যাপ সার্চ বার ব্যবহার করতে পারেন অথবা একটি APK ডাউনলোড করতে পারেন। আপনার যদি APK ডাউনলোড ও ইনস্টলের ভালো এক্সপেরিয়েন্স থাকে, তাহলে আমি আপনাকে Bluestack-এর থেকে Nox ব্যবহার করার পরামর্শ দিবো।

স্টেপ ৩. আপনার অ্যাপটি ডাউনলোড হয়ে গেলে ফ্রি ফায়ার চালানো খুবই স্মুথ্‌ হওয়া উচিৎ। কিন্তু Nox-এর ডিফল্ট সেটিংসের কারণে Nox-এ আমার Bluestacks-এর থেকে (যেটি ৪৫~৬০ এফপিএস (FPS)-এ চলছিল) ১০~২০ এফপিএস (FPS) কম রেটে আলট্রা মোডে গেমটি চালাতে হয়েছিল। Nox-এর বিস্তারিত সেটিংস নিয়ে অন্য কোনো সময় আলোচনা করা যাবে কিন্তু সবদিক দিয়ে চিন্তা করলে স্মুথ্‌নেস ঠিক আছে, Nox আসলে জিতে যায় তার ইন-অ্যাপ লেআউটের কারণে।

MEmu Play

যদিও আমি Bluestacks পছন্দ করি এর সহজ ব্যবহারের কারণে, MEmu হচ্ছে Bluestacks-এর আরো কুল ভার্সন। লুকের উপর চিন্তা করে বিবেচনা করলে MEmu অনেক দিক দিয়ে Bluestacks-কেও হার মানায় এবং আমার নিজেরই পরিচিত অনেক স্ট্রিমার হয় MEmu বা Nox চালায়।

MEmu ব্যবহার করে ফ্রি ফায়ার ডাউনলোড করা ও খেলা একদম সোজা ব্যাপার।

Memu Play

স্টেপ ১. অ্যাপটি ডাউনলোড করুন, ইনস্টল করে তারপর ওপেন করুন

স্টেপ ২. গুগল একাউন্ট দিয়ে লগইন করুন আর ফ্রি ফায়ার ডাউনলোড করার পর আপনি একদম রেডি!

Memu Play

MEmu একদম ঝামেলাহীনভাবে আলট্রা মোডে চলবে কোনো ধরনের পরিবর্তন ছাড়াই, কিন্তু আমি MEmu-তে ৫০ এফপিএস (FPS)-এর বেশি যেতে পারিনি। ফ্রেমরেট একটি শুটিং গেমের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এই ব্যাপারটি ফায়ারফাইটের ক্ষেত্রে ব্যাপক ভূমিকা রাখে। কিন্তু আপনি যদি নরমালি খেলে থাকেন, তাহলে ১০ এফপিএস (FPS)-এর ব্যবধান খুব একটা চোখে পড়বে না। আমি বেশ কম্পিটিটিভ খেলা খেলে থাকি এবং ১ ভার্সেস ১ সোলো ম্যাচগুলোর ভাগ্য ডিসাইড হয়ে যেতে পারে শুধুমাত্র কে আগে প্রতিপক্ষকে দেখে ফেললো এটি নিয়েও।

GameLoop

এই ইম্যুলেটরটি একদম লুকানো ট্রেজারের মতো, GameLoop আসলে ডিজাইন করা হয়েছিল ব্যাটেল রয়াল খেলার উপর ভিত্তি করে। এটি পাবজি-এর জন্য ডিজাইন করা হয় এবং গেমটির অফিসিয়াল ইম্যুলেটর হিসেবে ধরা হয়। ফ্রি ফায়ার পাবজি-এর সাথে অনেক ধরনের মিল আছে বিশেষ করে গেমপ্লের কথা চিন্তা করলে, সেই হিসেবে GameLoop ফ্রি ফায়ার-এর মতো গেমের জন্য একটি ভালো ইম্যুলেটর।

অন্যান্য ইম্যুলেটরের মতো এই ইম্যুলেটরও একই পদ্ধতি অবলম্বন করে – ডাউনলোড, ইনস্টল ওপেন এবং গুগল প্লে-তে লগইন।

গেম সেন্টার সার্চ করুন আর ডাউনলোড করুন ফ্রি ফায়ার।

GameLoop-এর সবচেয়ে বেস্ট পার্ট হচ্ছে এর সহজ ব্যবহার কারণ এর ডিজাইনের ভিত্তি করা হয়েছিল ব্যাটেল রয়াল গেমগুলোর কথা মাথায় রেখে। ডিফল্ট সেটিংস দিয়ে কোনো পরিবর্তন ছাড়াই রেকোমেন্ডেড স্পেকস্‌ থাকলেই এটি ৬০ এফপিএস (FPS) ফ্রেম রেটে আরামে চলবে।

শেষ কথা

আমার মতামত অনুযায়ী, ক্যাজুয়াল প্লেয়িং এবং গেম নিয়ে আরো কমফোর্টেবল ফিল করা যায় বলে পিসিতে গেম খেলা আরো সহজ। এটি একটি পারসোনাল চয়েজ যাদের কাছে মাউস ও কিবোর্ড ব্যবহার করলে আরো বেটার রিফ্লেক্স ও হ্যান্ড-আই কো-অর্ডিনেশন ঘটে।

মোট কথা, এই ৪ টি ইম্যুলেটর ব্যবহার করলে খুব সহজেই আপনার পিসিতে ফ্রি ফায়ার খেলতে পারবেন। এটি শুধুমাত্র আপনার ব্যক্তিগত চয়েজ ও হাতে যা আছে তার উপর নির্ভর করছে। আপনি যদি শুধুমাত্র BR (ব্যাটেল রয়াল) গেম খেলতে চান তাহলে GameLoop ট্রাই করে দেখতে পারেন, যদি আপনি অন্য গেমও খেলতে চান কোনো সেটিংসের পরিবর্তনের ঝামেলা ছাড়া, তাহলে Bluestacks দিয়ে খেলতে পারেন। আপনি যদি স্ট্রিমিংয়ের প্রতি ইন্টারেস্টেড হয়ে থাকেন, তাহলে আমি রেকোমেন্ড করবো নয় Nox অথবা MEmu-কে। যেটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সেটি হলো আপনি গেমটি এনজয় করছেন, আর সাথে সেই চিকেন ডিনারটিও!

ফ্রি ফায়ার-এর মাঠে এক্সট্রা অ্যাডভান্ডেজ পেতে চাইলে আমাদের নতুন প্লেয়ারদের জন্য স্পেশাল গাইড, কমপ্লিট উইপেন গাইড পড়ুন অথবা এখানে ক্লিক করে গ্যারেন ফ্রি ফায়ার-এর উপর আরো প্রো টিপ, নিউজ ও আপডেট পান।

আপনার গেমিং আর্সেনাল যখন পুরোদমে রেডি, আপনি চাইলে ক্যারেক্টারের উপর আরো ইনভেস্ট করতে পারেন সুবিধা পাওয়ার জন্য (কিছু ক্ষেত্রে) এবং কিনতে পারেন সুন্দর উইপেন স্কিন (অনেকেই বলে রুপের আগুনেও নাকি মারা যায়!)। আপনি খুব সহজেই কোডাশপ-এর মাধ্যমে বিকাশ দিয়ে বাংলাদেশের যেকোনো জায়গায় টপ-আপ করতে পারবেন FF diamonds।

BUY APP & GAME VOUCHER ONLINE

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here